Text size A A A
Color C C C C
পাতা

অফিস সম্পর্কিত

সোনাডাঙ্গা ও দৌলতপুর নতুত রাস্তা বাই সড়কের মধ্যবর্তী স্থানে মুজগুন্নী আবাসিক এলকায় বয়রা বাজার সংল্গন সড়কের পূবপাশ ঘেসে ইমাম প্রশিক্ষণ একাডেমী অফিসটি অবস্থিত৤

দেশের প্রায় তিন লক্ষ্য ইমাম সাহেবগণকে বাংলাদেশর আথ সামাজিক উন্নয়ন কাজে সহযোগী যোদ্ধ হিসেবে শামীল করার জন্য নিয়মিত, রিফ্রেসাস, মানব সম্পদ, এল, ও আই, দূর্যোগ ব্যবস্থা এবং কমকর্তা ও কমচারীর দক্ষতা বৃদ্ধির উপর প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান 11975 সালে 22  এপ্রিল ইসলামিক ফাউন্ডেশন এক্ট আদেশ এর মাধ্যমে ইসলামিক ফাউন্ডেশন গঠন করেন ।

গণপ্রাজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের ধম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন ইসলামিক ফাউন্ডেশন বাংলাদেশ এর রাজস্ব প্রকল্পসমূহের মধ্যে ইমাম প্রশিক্ষণ একাডেমী অন্যতম ইসলামের প্রাথমিক যুগে মুসলমানদের ধর্মীয়, সামাজিক, অথনৈতিক, যাবতীয় কমকান্ড মসজিদকে কেন্দ্র করেই পরিচালিত ও আবর্তিত হতোআমাদের প্রিয়ে নবী সাল্লাহল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের মসজিদ কেন্দ্রিক কর্মকান্ড পরিচালনা এ প্রক্রিয়া মুসলিম সমাজে দীর্ঘকাল ধরেই অব্যাহত ছিল। পরবর্তীকালে নানা কারণে মুসলিম সমাজ নবী করীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের মসজিদ কেন্দ্রিক সমাজ পরিচালনা আদর্শ হতে বিচ্যুত হয়ে পড়ে। ফলে যুগ যুগ ধরে মসজিদের ইমামগণের কার্যক্রম শুধুমাত্র কতকগুলো ধর্মীয় আচার অনুষ্ঠানের মধ্যে সীমিত হয়ে পড়ে এবং ইমামগণ সমাজের শ্রদ্ধাভাজন ব্যক্তিত্ব হওয়া সত্ত্বেও আর্থ সামাজিক উন্নয়ন কর্মকান্ড থেকে নিজেদের অজামেত্ম আসেত্ম আসেত্ম দুরে সরে পড়েছেন। যার ফলে জাতির বৃহত্তর উন্নয়ন প্রক্রিয়ায় তাঁরা তেমন অবদান রাখতে পারবেন না। অথচ শরীয়তের বিধি বিধান মুতাবিক সমাজের বৃহত্তর কল্যাণ সাধনে মসজিদকে ব্যবহার করা সম্ভব হলে মসজিদের ইমামগণ এক দিকে যেমন তাঁদের দ্বীনি দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি আর্থ-সামাজিক উন্নয়নমূলক কর্মকান্ডও আত্মনিয়োগ করতে পারেন এবং একই সাথে জনগণকে উন্নয়ন প্রক্রিয়ার সাথে সম্পৃক্ত করতে পারেন। মসজিদের ইমামগণকে আর্থ-সামাজি উন্নয়নমূলক কাজে আত্মনিয়োগ করার এ সুযোগ সম্ভাবনার কথা বিবেচনা করেই মসজিদের ইমামগণকে আর্থ-সামাজিক উন্নয়নমূলক বিভিন্ন বিষয়ে যুগোপযোগী ও বাসত্মবধর্মী প্রশিক্ষণ প্রদানের উদ্দেশ্য ১৯৭৯ সালের ১০ নভেম্বর ইমাম প্রশিক্ষণ প্রকল্প নামে এ প্রশিক্ষণ কর্মসূচীর শুভ সুচনা হয় এবং চতুর্থ পঞ্চবার্ষিকী পরিকল্পনা এ প্রকল্পটি ইমাম প্রশিক্ষণ প্রকল্প হতে ইসলামিক ফাউন্ডেশন ইমাম প্রশিক্ষণ একাডেমীতে রূপামত্মর করা হয় এবং সাথে সাথে প্রকল্পটির কার্যক্রমের পরিধিও সম্প্রসারিত হয়। চতুর্থ পঞ্চবার্ষিকী পরিকল্পনায় এ একাডেমীর ইমাম প্রশিক্ষণ কোর্সের পাশাপাশি কর্মকর্তা ও কর্মচারীগণের গুণগত মান ও দক্ষতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে কর্মকর্তা-কর্মচারী প্রশিক্ষণ কোর্সের ব্যবস্থা করা হয়। পঞ্চম পঞ্চমবার্ষিকী পরিকল্পনায় বিভিন্ন সরকারীুআধাসরকারী/স্বায়ত্ব শাসিত দপ্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারীগণের নৈতিকতা ও ধর্মীয় মূল্যবোধ সহ অন্যান্য ইসলামী বিষয়ে প্রশিক্ষণদানের লক্ষ্যে আরও একটি বিশেষ প্রশিক্ষণ কোর্স চালুর মাধ্যমে একাডেমীর কার্যক্রমের পরিধি আরও সম্প্রসারণ করা হয়। বিগত ২০০৪ সালে ১ জুলাই প্রকল্পটি রাজস্ব খাতে স্থানামত্মর হয়েছে।

ছবি